ঢাকা , শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এম পি আনোয়ারুল আজমের খুনের ঘটনায় তদন্তে ভারতের গোয়েন্দা

মনোয়ার ইমাম, কলকাতা
  • প্রকাশের সময় : ০৪:৩৫:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
  • / ৩৬ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের নেতা ও ঝিনাইদহ ৪, আসনের এম পি আনোয়ারুল আজম ওরফে আনারের খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আক্তারুজ্জামানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর পৌরসভার পৌর পিতা হাবিবুর রহমানের ছোট ভাই বলে জানা গেছে।

গত ৩০শে, এপ্রিল বাংলাদেশ থেকে ভারতের কলকাতায় আসেন তিনি। এবং কলকাতার নিউটাউনের কাছে একটি হোটেলে ভাড়া নেন। তিনি নাজিরা খাতুন নামক এক মহিলার সাথে যোগাযোগ মাধ্যম ঘর ভাড়া করে। নাজিরা খাতুনের স্বামী সন্দ্বীপ রায় আনোয়ারুল আজমকে ভাড়া দেন। এই শহরের একটি ঘর ভাড়া করতে আক্তারুজ্জামানের সাহায্য নেন। এবং ১৩মে, রাতে এই ফ্লাটে খুন হয়ে যায় ঝিনাইদহ ৪, আসনের, এম পি আনোয়ারুল আজম। এবং তার খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে তার বন্ধু আক্তারুজ্জামানকে। তবে এই ঘটনার পর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। আজ দুপুরে ভারতের দুই সদস্যর গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। তারা ঢাকার ডি বি ডি এম পি হাবিবুর রহমান ও অতিরিক্ত ডি এম বি মহিউদ্দিন এর সাথে যোগাযোগ করবেন। এবং ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ও বাংলাদেশ সরকারের গোয়েন্দা সংস্থা যৌথ উদ্যোগে এই ঘটনার কিনারা করতে মাঠে নামবেন। তবে এই খুনের ঘটনায় সাথে আন্তর্জাতিক সোনা পাচার কারীদের সাথে যোগাযোগ রয়েছে কিনা সেটা খেতিয়ে দেখছেন। তবে এই ঘটনার মূল চক্রী আক্তারুজ্জামান সহ তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।।

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

এম পি আনোয়ারুল আজমের খুনের ঘটনায় তদন্তে ভারতের গোয়েন্দা

প্রকাশের সময় : ০৪:৩৫:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের নেতা ও ঝিনাইদহ ৪, আসনের এম পি আনোয়ারুল আজম ওরফে আনারের খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আক্তারুজ্জামানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর পৌরসভার পৌর পিতা হাবিবুর রহমানের ছোট ভাই বলে জানা গেছে।

গত ৩০শে, এপ্রিল বাংলাদেশ থেকে ভারতের কলকাতায় আসেন তিনি। এবং কলকাতার নিউটাউনের কাছে একটি হোটেলে ভাড়া নেন। তিনি নাজিরা খাতুন নামক এক মহিলার সাথে যোগাযোগ মাধ্যম ঘর ভাড়া করে। নাজিরা খাতুনের স্বামী সন্দ্বীপ রায় আনোয়ারুল আজমকে ভাড়া দেন। এই শহরের একটি ঘর ভাড়া করতে আক্তারুজ্জামানের সাহায্য নেন। এবং ১৩মে, রাতে এই ফ্লাটে খুন হয়ে যায় ঝিনাইদহ ৪, আসনের, এম পি আনোয়ারুল আজম। এবং তার খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে তার বন্ধু আক্তারুজ্জামানকে। তবে এই ঘটনার পর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। আজ দুপুরে ভারতের দুই সদস্যর গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। তারা ঢাকার ডি বি ডি এম পি হাবিবুর রহমান ও অতিরিক্ত ডি এম বি মহিউদ্দিন এর সাথে যোগাযোগ করবেন। এবং ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ও বাংলাদেশ সরকারের গোয়েন্দা সংস্থা যৌথ উদ্যোগে এই ঘটনার কিনারা করতে মাঠে নামবেন। তবে এই খুনের ঘটনায় সাথে আন্তর্জাতিক সোনা পাচার কারীদের সাথে যোগাযোগ রয়েছে কিনা সেটা খেতিয়ে দেখছেন। তবে এই ঘটনার মূল চক্রী আক্তারুজ্জামান সহ তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।।