ঢাকা , শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

“জীবন দিয়ে খেলবে আর্জেন্টিনা, ছাড় দেবে না অস্ট্রেলিয়াও”

রিপু
  • প্রকাশের সময় : ০৩:০৩:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ১১২ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিদিনের পোস্ট || জীবন দিয়ে খেলবে আর্জেন্টিনা, ছাড় দেবে না অস্ট্রেলিয়াও|

একটু ভুল করলেই সর্বনাশ। বিদায় নিতে হবে বিশ্বকাপ থেকে। আমি আর্জেন্টিনার জার্সি পরতে পেরে গর্বিত। মরার আগ পর্যন্ত জার্সিটির সম্মান রক্ষা করব এবং সর্বদা নিজের সর্বোচ্চটুকু উজার করে দিতে প্রস্তুত। কখনো কখনো জিনিস পক্ষে আসবে, কখনো বিপক্ষে। কিন্তু আমি কখনো লুকিয়ে যাব না। এটাই আমাকে এখানে নিয়ে এসেছে।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে গণমাধ্যমে এভাবেই নিজের ভাবনা প্রকাশ করেন আর্জেন্টিনার খেলোয়াড় রদ্রিগো ডি পল। তিনি বলেন, ‘শরীরে বইয়ে যাচ্ছে এক গ্ল্যাডিয়েটরের রক্ত। মাথায় শুধুই প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেওয়ার চিন্তা।’

দলের একতাতে মুগ্ধ রদ্রিগো ডি পল, ‘আপনি সবসময় পরাজয় থেকে শেখেন এবং আমরা নিজেদেরকে এমন একটি অবস্থানে পেয়েছিলাম যা অস্বাভাবিক ছিল। তবে আমরা যথেষ্ট সামর্থ‌্যবান যে নিজেদের চরিত্র ও ব্যক্তিত্ব পরবর্তীকালে ফুটিয়ে তুলেছি।’

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে হোঁচট খাওয়ার পর আলবিসেলেস্তেদের জন্য প্রতিটি ম্যাচই নক আউট! মেক্সিকোর বিপক্ষে জিততেই হবে এমন ম্যাচে ২-০ গোলে জয় পায় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। গ্রুপ চ্যাম্পিয়নরা হয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে পোল্যান্ডের বিপক্ষেও জয় দরকার ছিল। সেই ম্যাচেও ২-০ গোলে জয়।

এখন পর্যন্ত মেক্সিকো ও পোল্যান্ডের বিপক্ষে সাত ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা। যেখানে প্রত্যাশিতভাবেই আর্জেন্টিনার জয় বেশি। পাঁচ ম্যাচ জিতেছে তারা। একটি ম্যাচ অস্ট্রেলিয়া ড্র করেছে। অপর ম্যাচ তারা জিতেছে। তবে বিশ্বকাপে এবারই প্রথম দুই দল নক আউট পর্বে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।

যদিও পরিসংখ্যান এবং শক্তির বিচার করতে হয় তাহলে অবশ্যই আর্জেন্টিনা বেশি শক্তিশালী। বিশেষ করে শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনা যেভাবে একচেটিয়ে খেলেছে সেই আত্মবিশ্বাসে ও খেলার ধার ধরে রাখতে পারলে অস্ট্রেলিয়ার ছন্নছাড়া হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আলবিসেলেস্তেদের পারফরম্যান্সে শেষ ম্যাচে উল্লেখ‌যোগ্য উন্নতি ছিল, মেসির ছায়া থেকে বের হয়ে এক দল হয়ে পারফর্ম করা।

এদিকে অস্ট্রেলিয়া যে মেসিদের এক চুল পরিমাণ ছাড় দেবে তা বোঝা গেল দলের ডিফেন্ডার মিলোস ডেগেনেক কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘এটা ৯০ মিনিটের খেলা, হয়তো বা ১২০ মিনিটের। এটা নকআউট ম্যাচ। কেউ আমাদের এখানে প্রত্যাশা করেনি, আমরা সবকিছু নিংড়ে দেব তাদের বিপক্ষে, আমাদের কোনো চাপ নেই। এটা কঠিন ম্যাচ হতে যাচ্ছে, খেলতে হবে সম্ভবত সেরা ফুটবলারের বিরুদ্ধে। কিন্তু এটা ১১ জনের বিরুদ্ধে ১১ জনের খেলা। ওদের দলে ১১ জন মেসি নেই, একজনই।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ । রিপু /প্রতিদিনের পোস্ট

এই নিউজটি শেয়ার করুন

“জীবন দিয়ে খেলবে আর্জেন্টিনা, ছাড় দেবে না অস্ট্রেলিয়াও”

প্রকাশের সময় : ০৩:০৩:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিদিনের পোস্ট || জীবন দিয়ে খেলবে আর্জেন্টিনা, ছাড় দেবে না অস্ট্রেলিয়াও|

একটু ভুল করলেই সর্বনাশ। বিদায় নিতে হবে বিশ্বকাপ থেকে। আমি আর্জেন্টিনার জার্সি পরতে পেরে গর্বিত। মরার আগ পর্যন্ত জার্সিটির সম্মান রক্ষা করব এবং সর্বদা নিজের সর্বোচ্চটুকু উজার করে দিতে প্রস্তুত। কখনো কখনো জিনিস পক্ষে আসবে, কখনো বিপক্ষে। কিন্তু আমি কখনো লুকিয়ে যাব না। এটাই আমাকে এখানে নিয়ে এসেছে।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে গণমাধ্যমে এভাবেই নিজের ভাবনা প্রকাশ করেন আর্জেন্টিনার খেলোয়াড় রদ্রিগো ডি পল। তিনি বলেন, ‘শরীরে বইয়ে যাচ্ছে এক গ্ল্যাডিয়েটরের রক্ত। মাথায় শুধুই প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেওয়ার চিন্তা।’

দলের একতাতে মুগ্ধ রদ্রিগো ডি পল, ‘আপনি সবসময় পরাজয় থেকে শেখেন এবং আমরা নিজেদেরকে এমন একটি অবস্থানে পেয়েছিলাম যা অস্বাভাবিক ছিল। তবে আমরা যথেষ্ট সামর্থ‌্যবান যে নিজেদের চরিত্র ও ব্যক্তিত্ব পরবর্তীকালে ফুটিয়ে তুলেছি।’

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে হোঁচট খাওয়ার পর আলবিসেলেস্তেদের জন্য প্রতিটি ম্যাচই নক আউট! মেক্সিকোর বিপক্ষে জিততেই হবে এমন ম্যাচে ২-০ গোলে জয় পায় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। গ্রুপ চ্যাম্পিয়নরা হয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে পোল্যান্ডের বিপক্ষেও জয় দরকার ছিল। সেই ম্যাচেও ২-০ গোলে জয়।

এখন পর্যন্ত মেক্সিকো ও পোল্যান্ডের বিপক্ষে সাত ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা। যেখানে প্রত্যাশিতভাবেই আর্জেন্টিনার জয় বেশি। পাঁচ ম্যাচ জিতেছে তারা। একটি ম্যাচ অস্ট্রেলিয়া ড্র করেছে। অপর ম্যাচ তারা জিতেছে। তবে বিশ্বকাপে এবারই প্রথম দুই দল নক আউট পর্বে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।

যদিও পরিসংখ্যান এবং শক্তির বিচার করতে হয় তাহলে অবশ্যই আর্জেন্টিনা বেশি শক্তিশালী। বিশেষ করে শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনা যেভাবে একচেটিয়ে খেলেছে সেই আত্মবিশ্বাসে ও খেলার ধার ধরে রাখতে পারলে অস্ট্রেলিয়ার ছন্নছাড়া হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আলবিসেলেস্তেদের পারফরম্যান্সে শেষ ম্যাচে উল্লেখ‌যোগ্য উন্নতি ছিল, মেসির ছায়া থেকে বের হয়ে এক দল হয়ে পারফর্ম করা।

এদিকে অস্ট্রেলিয়া যে মেসিদের এক চুল পরিমাণ ছাড় দেবে তা বোঝা গেল দলের ডিফেন্ডার মিলোস ডেগেনেক কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘এটা ৯০ মিনিটের খেলা, হয়তো বা ১২০ মিনিটের। এটা নকআউট ম্যাচ। কেউ আমাদের এখানে প্রত্যাশা করেনি, আমরা সবকিছু নিংড়ে দেব তাদের বিপক্ষে, আমাদের কোনো চাপ নেই। এটা কঠিন ম্যাচ হতে যাচ্ছে, খেলতে হবে সম্ভবত সেরা ফুটবলারের বিরুদ্ধে। কিন্তু এটা ১১ জনের বিরুদ্ধে ১১ জনের খেলা। ওদের দলে ১১ জন মেসি নেই, একজনই।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ । রিপু /প্রতিদিনের পোস্ট