ঢাকা , সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঠান্ডার কারণে বাড়ছে শিশু রোগী বিড়!

  • প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৬:২১:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৪
  • ৪০ বার পড়া হয়েছে

স্বপন রবি দাশ, জেলা প্রতিনিধি হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বেড়েছে শিশু রোগীর ভিড়। শুক্রবার (১২জানুয়ারি) বিকাল ৫ ঘটিকায় সময় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে গড়ে প্রতিদিন ৫০ থেকে ১০০ শিশুর চিকিৎসা করাতে জড়ো হচ্ছেন হাসপাতালে। জ্বর-সর্দি, কারো ডায়রিয়া আবার কারো বা নিউমোনিয়া-শ্বাসকষ্ট। শিশুদের অসুস্থতা বেড়ে যাওয়ার মূল কারণ হলো আবহাওয়া পরিবর্তন ,বলছেন চিকিৎসকরা। মা-বাবার কোলে চেপে এসেছে শিশুদের দল। চিকিৎসা নিতে আসা শিশুদের জ্বর-সর্দি, ডায়রিয়া আবার নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টের রোগীর সংখ্যা বেশি।

বর্তমানে নবীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২৫-৩০ জন শিশু। সবচেয়ে উত্তরের জেলায় ঠাণ্ডা পড়তে শুরু করেছে। গরম-ঠাণ্ডার সত্য প্রবাহের কারণে শিশু রোগীর সংখ্যা বেশি বাড়ছে।

নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ চম্পক কিশোর শাহা সুমন বলছেন, সার্বক্ষণিক সেবা প্রদান করছে চিকিৎসকরা। তিনি আরো জানান, হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমাণ ওষুধ, স্যালাইন, মজুদ রয়েছে।

Facebook Comments Box
ট্যাগস :
জনপ্রিয়

নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঠান্ডার কারণে বাড়ছে শিশু রোগী বিড়!

প্রকাশের সময় : ০৬:২১:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৪

স্বপন রবি দাশ, জেলা প্রতিনিধি হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বেড়েছে শিশু রোগীর ভিড়। শুক্রবার (১২জানুয়ারি) বিকাল ৫ ঘটিকায় সময় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে গড়ে প্রতিদিন ৫০ থেকে ১০০ শিশুর চিকিৎসা করাতে জড়ো হচ্ছেন হাসপাতালে। জ্বর-সর্দি, কারো ডায়রিয়া আবার কারো বা নিউমোনিয়া-শ্বাসকষ্ট। শিশুদের অসুস্থতা বেড়ে যাওয়ার মূল কারণ হলো আবহাওয়া পরিবর্তন ,বলছেন চিকিৎসকরা। মা-বাবার কোলে চেপে এসেছে শিশুদের দল। চিকিৎসা নিতে আসা শিশুদের জ্বর-সর্দি, ডায়রিয়া আবার নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টের রোগীর সংখ্যা বেশি।

বর্তমানে নবীগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২৫-৩০ জন শিশু। সবচেয়ে উত্তরের জেলায় ঠাণ্ডা পড়তে শুরু করেছে। গরম-ঠাণ্ডার সত্য প্রবাহের কারণে শিশু রোগীর সংখ্যা বেশি বাড়ছে।

নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ চম্পক কিশোর শাহা সুমন বলছেন, সার্বক্ষণিক সেবা প্রদান করছে চিকিৎসকরা। তিনি আরো জানান, হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমাণ ওষুধ, স্যালাইন, মজুদ রয়েছে।

Facebook Comments Box