ঢাকা , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে নতুন জাতের আলু সানশাইনের বাম্পার ফলন

ছবি প্রতিদিনের পোস্ট

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, প্রতিদিনের পোস্ট.কম: কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নে কৃষক ইয়াছিনের জমিতে নতুন জাতের উচ্চফলনশীল ও রপ্তানিযোগ্য বিএডিসি গোল আলু-১ ( সানশাইন) জাতের প্রদর্শনী বাস্তবায়িত হয়েছে।

কৃষক ইয়াছিন মিয়া জানান, প্রচলিত জাতের আলু গুলো যেখানে হেক্টর প্রতি ২০ থেকে ২২ মেট্রিক টন উৎপাদন হয় সেখানে রোগ প্রতিরোধী উচ্চফলনশীল নতুন জাতের এই আলু’র হেক্টর প্রতি গড় ফলন পাওয়া গেছে ৩২.৫ মেট্রিক টন।
নবীনগরে_নতুন_জাতের_আলু_সানশাইনের_বাম্পা_ফলন

উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা গিয়াসউদ্দিন নাঈম প্রতিদিনের পোস্টকে জানান, উক্ত ব্লকের সরেজমিনে পরিদর্শন করে নিয়মিত পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি আরও জানান রোগ বালাই কম ও স্বল্প সময়ে পরিপক্ক হয় বলে এ জাতের আলু চাষে দারুণ আগ্রহ দেখাচ্ছে কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম লিটন জানান, এই আলুর শুষ্ক পদার্থ ১৮% থাকে, রপ্তানিযোগ্য এই আলু ৮০-৯০ দিনে পরিপক্ক হয়ে যায়। আগামীতে এই আলু সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কৃষকদের পরামর্শ এবং উপকরণ সহায়তা দেওয়া হবে।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনী এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ /প্রতিদিনের পোস্ট

Facebook Comments Box
ট্যাগস :
জনপ্রিয়

নবীনগরে নতুন জাতের আলু সানশাইনের বাম্পার ফলন

প্রকাশের সময় : ০৪:৩৭:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, প্রতিদিনের পোস্ট.কম: কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নে কৃষক ইয়াছিনের জমিতে নতুন জাতের উচ্চফলনশীল ও রপ্তানিযোগ্য বিএডিসি গোল আলু-১ ( সানশাইন) জাতের প্রদর্শনী বাস্তবায়িত হয়েছে।

কৃষক ইয়াছিন মিয়া জানান, প্রচলিত জাতের আলু গুলো যেখানে হেক্টর প্রতি ২০ থেকে ২২ মেট্রিক টন উৎপাদন হয় সেখানে রোগ প্রতিরোধী উচ্চফলনশীল নতুন জাতের এই আলু’র হেক্টর প্রতি গড় ফলন পাওয়া গেছে ৩২.৫ মেট্রিক টন।
নবীনগরে_নতুন_জাতের_আলু_সানশাইনের_বাম্পা_ফলন

উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা গিয়াসউদ্দিন নাঈম প্রতিদিনের পোস্টকে জানান, উক্ত ব্লকের সরেজমিনে পরিদর্শন করে নিয়মিত পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি আরও জানান রোগ বালাই কম ও স্বল্প সময়ে পরিপক্ক হয় বলে এ জাতের আলু চাষে দারুণ আগ্রহ দেখাচ্ছে কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম লিটন জানান, এই আলুর শুষ্ক পদার্থ ১৮% থাকে, রপ্তানিযোগ্য এই আলু ৮০-৯০ দিনে পরিপক্ক হয়ে যায়। আগামীতে এই আলু সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কৃষকদের পরামর্শ এবং উপকরণ সহায়তা দেওয়া হবে।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনী এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ /প্রতিদিনের পোস্ট

Facebook Comments Box