ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে পরিবারের প্রহারে প্রাণ গেল বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লার

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ১১:০৭:০০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০২৩
  • / ১২৭ বার পড়া হয়েছে

মোঃ আলমগীর হোসেন, প্রতিদিনের পোস্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে পরিবারের হাতে মার খেয়ে প্রাণ গেলো বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ (২৮) নামে এক যুবকের।

ঢাকার একটি হাসপাতালে দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে বৃহস্প্রতিবার (২২ জুন) দুপুরে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন, নিহত হেদায়েত উল্লাহ উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের জুলাইপাড়া গ্রামের পূর্বপাড়ার মজিদ মোল্লার ছেলে।

জানাযায়, মজিদ মোল্লার ২ ছেলে ৪ মেয়ে, ছেলেদের মধ্যে হেদায়েত উল্লাহ বড় জন্মের সময় থেকে সে বাকপ্রতিবন্ধী। হেদায়েত উল্লাহ তিন বছর পূর্বে একই গ্রামের আবুল খায়ের মিয়ার মেয়েকে বিয়ে করেন।তার একটি সন্তান রয়েছে। সে বাকপ্রতিবন্ধী হওয়ায় হেদায়েত উল্লাহ ও তার স্ত্রীকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য সহ অমানসিক নির্যাতন করে আসছে পরিবারের লোকজন। গত ১৬ জুন সন্ধায় তার মা বাবা ছোট ভাই ও বোন মিলে তাকে মারধর করে গুরতর আহত করে। আহত অবস্থায় তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নবীনগর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা রেফার করেন। দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে বৃহস্প্রতিবার দুপুরে তিনি মারা যান। গ্রামবাসীর অভিযোগ সম্পত্তির লোভে পরিবারের লোকজন তাকে হত্যা করেছে।

হেদায়েত উল্লার স্ত্রী রাকিবা আক্তার প্রতিদিনের পোস্টকে বলেন, আমাকে ও আমার স্বামীকে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছে আমার শুশুর, দেবর, ননদ ও শাশুরি। কয়েক দিন পূর্বে আমাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। গত ১৬ জুন রাতে আমার স্বামীকে মারধর করে গুরতর আহত করে। মারধর এর ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছি। আমার স্বামী চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মৃত্যু বরণ করেন। আমার স্বামীর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি করছি।

নবীনগর থানার ওসি সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ নামে এক যুবকের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

এই নিউজটি শেয়ার করুন

x

নবীনগরে পরিবারের প্রহারে প্রাণ গেল বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লার

প্রকাশের সময় : ১১:০৭:০০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০২৩

মোঃ আলমগীর হোসেন, প্রতিদিনের পোস্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে পরিবারের হাতে মার খেয়ে প্রাণ গেলো বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ (২৮) নামে এক যুবকের।

ঢাকার একটি হাসপাতালে দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে বৃহস্প্রতিবার (২২ জুন) দুপুরে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন, নিহত হেদায়েত উল্লাহ উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের জুলাইপাড়া গ্রামের পূর্বপাড়ার মজিদ মোল্লার ছেলে।

জানাযায়, মজিদ মোল্লার ২ ছেলে ৪ মেয়ে, ছেলেদের মধ্যে হেদায়েত উল্লাহ বড় জন্মের সময় থেকে সে বাকপ্রতিবন্ধী। হেদায়েত উল্লাহ তিন বছর পূর্বে একই গ্রামের আবুল খায়ের মিয়ার মেয়েকে বিয়ে করেন।তার একটি সন্তান রয়েছে। সে বাকপ্রতিবন্ধী হওয়ায় হেদায়েত উল্লাহ ও তার স্ত্রীকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য সহ অমানসিক নির্যাতন করে আসছে পরিবারের লোকজন। গত ১৬ জুন সন্ধায় তার মা বাবা ছোট ভাই ও বোন মিলে তাকে মারধর করে গুরতর আহত করে। আহত অবস্থায় তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নবীনগর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা রেফার করেন। দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে বৃহস্প্রতিবার দুপুরে তিনি মারা যান। গ্রামবাসীর অভিযোগ সম্পত্তির লোভে পরিবারের লোকজন তাকে হত্যা করেছে।

হেদায়েত উল্লার স্ত্রী রাকিবা আক্তার প্রতিদিনের পোস্টকে বলেন, আমাকে ও আমার স্বামীকে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছে আমার শুশুর, দেবর, ননদ ও শাশুরি। কয়েক দিন পূর্বে আমাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। গত ১৬ জুন রাতে আমার স্বামীকে মারধর করে গুরতর আহত করে। মারধর এর ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছি। আমার স্বামী চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মৃত্যু বরণ করেন। আমার স্বামীর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি করছি।

নবীনগর থানার ওসি সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ নামে এক যুবকের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব।