ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

“নেইমার ভেবেছিলেন বিশ্বকাপে আর খেলতে পারবেন না”

রিপু
  • প্রকাশের সময় : ১১:৩২:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৯৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিদিনের পোস্ট || নেইমার ভেবেছিলেন বিশ্বকাপে আর খেলতে পারবেন না|

বিশ্বকাপটাই যেন নেইমারের জন্য কুফা। গত বিশ্বকাপে বারবার ফাউলের শিকার হয়ে ইনজুরিতে পড়ে সব খেলা খেলতে পারেননি তিনি।

এবার সেই আক্ষেপ ঘোচানোর মোক্ষম সুযোগটা কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন ব্রাজিলিয়ান এ স্ট্রাইকার। কিন্তু প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে খেলতে নেমে ৯ বার ফাউলের শিকার হন।

খেলা শেষ হওয়ার কয়েক মিনিট আগে গোড়ালিতে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে যান। এর পর দুটি ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি।

তাকে নিয়ে পুরো ব্রাজিল শিবিরে শঙ্কা বিরাজ করে। নেইমার নিজেও ভেবেছিলেন আর হয়তো বিশ্বকাপে খেলা হবে না।

তবে সেই শঙ্কা সত্যি হয়নি। সোমবার রাতে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে খেলেন নেইমার। পুরো সময়টা দুরন্ত খেলেন। গোলও করেন।

একসময় তার মনে হয়েছিল যে বিশ্বকাপটাই হয়তো খেলা হবে না। কোরিয়াকে হারানোর পর নেইমারের এখনকার স্বপ্ন ব্রাজিলকে ষষ্ঠবার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন করা।

সোমবার রাতে প্রথমার্ধেই ৪-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ব্রাজিল। ভিনিসিয়াস জুনিয়র গোল করেন ৭ মিনিটের মাথায়। ৪ মিনিটের মধ্যে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান বাড়ান নেইমার। ২৯ মিনিটের মাথায় গোল করেন রিচার্লিসন। লুকাস পাকুয়েতা গোল করেন ৩৬ মিনিটের মাথায়। শুরু থেকেই ম্যাচের রাশ ছিল ব্রাজিলের হাতে।

নেইমার বলেন, ভয় লাগছিল। মনে হয়েছিল এবারের বিশ্বকাপটাই খেলা হবে না। কিন্তু আমার বন্ধুরা, পরিবারের লোকজন আমার পাশে ছিল। যখন মনের জোর পেতাম না, তাদের থেকেই সেই জোরটা খুঁজে পেতাম।

১২৩ ম্যাচে ৭৬ গোল করেছেন নেইমার। ব্রাজিলের হয়ে সব থেকে বেশি গোল করার নজির রয়েছে পেলের। ৭৭ গোল করেছেন তিনিও। নেইমারের তার থেকে একটি গোল দূরে। এই বিশ্বকাপেই পেলেকে টপকে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে তার কাছে।

নেইমার বলেন, এখন আমার গোড়ালিতে ব্যথা নেই। ভালো খেলেছি। তবে আরও ভালো করার জায়গা রয়েছে। আমরা সেই চেষ্টাটাই করব। আমরা বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছি। আর তিনটি ম্যাচ বাকি। বিশ্বকাপ জয়টাই এখন আমাদের লক্ষ্য। আশা করি ফাইনাল অবধি আমরা নাচতে পারব।’

কোরিয়ার বিপক্ষে প্রথম গোলের পর নাচতে দেখা গিয়েছিল নেইমারদের। প্রতিটা গোলের পরেই একেক রকম উদযাপন করার কথা বলেছিল ব্রাজিল। সেটিই দেখা গেছে এবারের বিশ্বকাপে। ফাইনাল পর্যন্ত সেই নাচ নাচতে চাইছেন নেইমাররা।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ । রিপু /প্রতিদিনের পোস্ট

এই নিউজটি শেয়ার করুন

“নেইমার ভেবেছিলেন বিশ্বকাপে আর খেলতে পারবেন না”

প্রকাশের সময় : ১১:৩২:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিদিনের পোস্ট || নেইমার ভেবেছিলেন বিশ্বকাপে আর খেলতে পারবেন না|

বিশ্বকাপটাই যেন নেইমারের জন্য কুফা। গত বিশ্বকাপে বারবার ফাউলের শিকার হয়ে ইনজুরিতে পড়ে সব খেলা খেলতে পারেননি তিনি।

এবার সেই আক্ষেপ ঘোচানোর মোক্ষম সুযোগটা কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন ব্রাজিলিয়ান এ স্ট্রাইকার। কিন্তু প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে খেলতে নেমে ৯ বার ফাউলের শিকার হন।

খেলা শেষ হওয়ার কয়েক মিনিট আগে গোড়ালিতে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে যান। এর পর দুটি ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি।

তাকে নিয়ে পুরো ব্রাজিল শিবিরে শঙ্কা বিরাজ করে। নেইমার নিজেও ভেবেছিলেন আর হয়তো বিশ্বকাপে খেলা হবে না।

তবে সেই শঙ্কা সত্যি হয়নি। সোমবার রাতে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে খেলেন নেইমার। পুরো সময়টা দুরন্ত খেলেন। গোলও করেন।

একসময় তার মনে হয়েছিল যে বিশ্বকাপটাই হয়তো খেলা হবে না। কোরিয়াকে হারানোর পর নেইমারের এখনকার স্বপ্ন ব্রাজিলকে ষষ্ঠবার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন করা।

সোমবার রাতে প্রথমার্ধেই ৪-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ব্রাজিল। ভিনিসিয়াস জুনিয়র গোল করেন ৭ মিনিটের মাথায়। ৪ মিনিটের মধ্যে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান বাড়ান নেইমার। ২৯ মিনিটের মাথায় গোল করেন রিচার্লিসন। লুকাস পাকুয়েতা গোল করেন ৩৬ মিনিটের মাথায়। শুরু থেকেই ম্যাচের রাশ ছিল ব্রাজিলের হাতে।

নেইমার বলেন, ভয় লাগছিল। মনে হয়েছিল এবারের বিশ্বকাপটাই খেলা হবে না। কিন্তু আমার বন্ধুরা, পরিবারের লোকজন আমার পাশে ছিল। যখন মনের জোর পেতাম না, তাদের থেকেই সেই জোরটা খুঁজে পেতাম।

১২৩ ম্যাচে ৭৬ গোল করেছেন নেইমার। ব্রাজিলের হয়ে সব থেকে বেশি গোল করার নজির রয়েছে পেলের। ৭৭ গোল করেছেন তিনিও। নেইমারের তার থেকে একটি গোল দূরে। এই বিশ্বকাপেই পেলেকে টপকে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে তার কাছে।

নেইমার বলেন, এখন আমার গোড়ালিতে ব্যথা নেই। ভালো খেলেছি। তবে আরও ভালো করার জায়গা রয়েছে। আমরা সেই চেষ্টাটাই করব। আমরা বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছি। আর তিনটি ম্যাচ বাকি। বিশ্বকাপ জয়টাই এখন আমাদের লক্ষ্য। আশা করি ফাইনাল অবধি আমরা নাচতে পারব।’

কোরিয়ার বিপক্ষে প্রথম গোলের পর নাচতে দেখা গিয়েছিল নেইমারদের। প্রতিটা গোলের পরেই একেক রকম উদযাপন করার কথা বলেছিল ব্রাজিল। সেটিই দেখা গেছে এবারের বিশ্বকাপে। ফাইনাল পর্যন্ত সেই নাচ নাচতে চাইছেন নেইমাররা।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ । রিপু /প্রতিদিনের পোস্ট