ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :

‘পরকীয়া করতে গিয়ে বোদায় পুলিশ সদস্য আটক’

  • প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৫:০৭:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ১৪৮ বার পড়া হয়েছে

পঞ্চগড় প্রতিনিধি, প্রতিদিনের পোস্ট  || পরকীয়া করতে গিয়ে এলাকাবাসীর কাছে ধরা পড়েছে শেখ রেজওয়ান আহম্মেদ (৩৫) নামে এক পুলিশ সদস্য।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ভোর রাতে স্থানীয় জনতা গৃহবধূর বাড়িতেই প্রথমে শেখ রেজওয়ানকে আটক করেন।

আটক পুলিশ সদস্য নীলফামারী জেলা সদরের শহিদার রহমানের ছেলে। তিনি পঞ্চগড়ের বোদা থানায় কর্মরত।

এর আগে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার গরুহাটি ডাঙ্গা এলাকায় এক গৃহবধূর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

বিকেলে ওই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থাসহ আইনগত প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

এদিকে ভুক্তভোগী পরকীয়া প্রেমিকা গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, বিয়ের কথা বলে গরুহাটি থানার ডাঙ্গা এলাকার এক গৃহবধূর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক স্থাপন করেন পুলিশ সদস্য রেজোয়ান। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই গৃহবধূর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হয় সে।

বোদা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাউসার আলম মুঠোফোনে সাংবাদিকদের জানান, ওই গৃহবধূর সঙ্গে বেশ কিছুদিন থেকে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক করেছিল শেখ রেজওয়ান। বৃহস্পতিবার রাতে গৃহবধূর সঙ্গে দেখা করতে গেলে স্থানীয়রা টের পেয়ে হাতে নাতে পুলিশ সদস্যকে আটক করে। পরে আমাকে খবর দেন স্থানীয়রা। এ সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ সদস্য রেজওয়ানকে বোদা থানা পুলিশে দেওয়া হয়। গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বোদা থানার ওসি সুজয় কুমার রায় জানায় পুলিশ কনেস্টবল রেজোয়ানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। তাকে ক্লোজড করে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments Box
ট্যাগস :

জীবনের শেষ ভোরেও সংবাদপত্র তুলে দিয়েছেন চৌধুরী

‘পরকীয়া করতে গিয়ে বোদায় পুলিশ সদস্য আটক’

প্রকাশের সময় : ০৫:০৭:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

পঞ্চগড় প্রতিনিধি, প্রতিদিনের পোস্ট  || পরকীয়া করতে গিয়ে এলাকাবাসীর কাছে ধরা পড়েছে শেখ রেজওয়ান আহম্মেদ (৩৫) নামে এক পুলিশ সদস্য।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ভোর রাতে স্থানীয় জনতা গৃহবধূর বাড়িতেই প্রথমে শেখ রেজওয়ানকে আটক করেন।

আটক পুলিশ সদস্য নীলফামারী জেলা সদরের শহিদার রহমানের ছেলে। তিনি পঞ্চগড়ের বোদা থানায় কর্মরত।

এর আগে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার গরুহাটি ডাঙ্গা এলাকায় এক গৃহবধূর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

বিকেলে ওই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থাসহ আইনগত প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

এদিকে ভুক্তভোগী পরকীয়া প্রেমিকা গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, বিয়ের কথা বলে গরুহাটি থানার ডাঙ্গা এলাকার এক গৃহবধূর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক স্থাপন করেন পুলিশ সদস্য রেজোয়ান। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই গৃহবধূর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হয় সে।

বোদা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাউসার আলম মুঠোফোনে সাংবাদিকদের জানান, ওই গৃহবধূর সঙ্গে বেশ কিছুদিন থেকে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক করেছিল শেখ রেজওয়ান। বৃহস্পতিবার রাতে গৃহবধূর সঙ্গে দেখা করতে গেলে স্থানীয়রা টের পেয়ে হাতে নাতে পুলিশ সদস্যকে আটক করে। পরে আমাকে খবর দেন স্থানীয়রা। এ সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ সদস্য রেজওয়ানকে বোদা থানা পুলিশে দেওয়া হয়। গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বোদা থানার ওসি সুজয় কুমার রায় জানায় পুলিশ কনেস্টবল রেজোয়ানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। তাকে ক্লোজড করে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments Box