ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাসায় ডেকে ছাত্রীকে ধর্ষণ, প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
  • প্রকাশের সময় : ১১:১৭:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪
  • / ৩০ বার পড়া হয়েছে

গ্রেপ্তার হওয়া শের শাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফয়েজুল ইসলাম (৪৬)। ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রামে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার (৯ জুন) রাতে পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানার শেরশাহ এলাকার বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোমবার (১০ জুন) দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।
অভিযুক্ত ফয়েজুল ইসলাম শেরশাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে কর্মরত আছেন। ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ নেশা জাতীয় শরবত খাইয়ে তাকে ধর্ষণ করে ওই শিক্ষক।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি সঞ্জয় কুমার সিনহা জানান, গ্রেফতার প্রধান শিক্ষকের নাম ফয়েজুল ইসলাম (৪৬)। ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়াতেন তিনি। শনিবার গার্মেন্টস কর্মী মেয়েটির মা কাজে যাওয়ার পর সে বাসায় একা ছিল। শনিবার সকালে আরেক ছাত্রীর মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে বাসায় ডেকে নেন ফয়েজুল। এরপর তাকে বাসায় ধর্ষণ করে।

ওই ছাত্রীর মা জানিয়েছেন, প্রধান শিক্ষক ফয়েজুল বাসায় ডেকে নিয়ে ওই ছাত্রীকে নেশাজাতীয় শরবত পান করার পর অচেতন করে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণের ঘটনা কাউকে না জানাতে ছাত্রীকে হুমকিও দেয়। শনিবার রাতে মা বাসায় ফেরার পর ধর্ষিতা ছাত্রী পুরো ঘটনার বর্ণনা দেন। শনিবার গভীর রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বায়েজীদ বোস্তামী থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। পরে রোববার রাতে ফয়েজুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। আজ (সোমবার) তাকে চট্টগ্রামের আদালতে হাজির করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

বাসায় ডেকে ছাত্রীকে ধর্ষণ, প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশের সময় : ১১:১৭:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪

চট্টগ্রামে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার (৯ জুন) রাতে পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানার শেরশাহ এলাকার বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোমবার (১০ জুন) দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।
অভিযুক্ত ফয়েজুল ইসলাম শেরশাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে কর্মরত আছেন। ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ নেশা জাতীয় শরবত খাইয়ে তাকে ধর্ষণ করে ওই শিক্ষক।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি সঞ্জয় কুমার সিনহা জানান, গ্রেফতার প্রধান শিক্ষকের নাম ফয়েজুল ইসলাম (৪৬)। ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়াতেন তিনি। শনিবার গার্মেন্টস কর্মী মেয়েটির মা কাজে যাওয়ার পর সে বাসায় একা ছিল। শনিবার সকালে আরেক ছাত্রীর মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে বাসায় ডেকে নেন ফয়েজুল। এরপর তাকে বাসায় ধর্ষণ করে।

ওই ছাত্রীর মা জানিয়েছেন, প্রধান শিক্ষক ফয়েজুল বাসায় ডেকে নিয়ে ওই ছাত্রীকে নেশাজাতীয় শরবত পান করার পর অচেতন করে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণের ঘটনা কাউকে না জানাতে ছাত্রীকে হুমকিও দেয়। শনিবার রাতে মা বাসায় ফেরার পর ধর্ষিতা ছাত্রী পুরো ঘটনার বর্ণনা দেন। শনিবার গভীর রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বায়েজীদ বোস্তামী থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। পরে রোববার রাতে ফয়েজুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। আজ (সোমবার) তাকে চট্টগ্রামের আদালতে হাজির করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।