ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বেলাবতে নারী শ্রমিককে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

তানভীর আহমেদ, প্রতিদিনের পোস্ট.কম
  • প্রকাশের সময় : ০২:৩৬:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মার্চ ২০২৩
  • / ১৭২ বার পড়া হয়েছে

ছবি প্রতিদিনের পোস্ট

তানভীর আহমেদ, প্রতিদিনের পোস্ট.কম: নরসিংদীর বেলাবতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পারভিন বেগম(৩০) নামের এক কারখানা নারী শ্রমিককে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাটুলী ইউনিয়নের হাবিশপুর গ্রামে।

জানাযায় উপজেলার হাবিশপুর গ্রামের শেখ হারুনের স্ত্রী সাত বছর যাবত দৃষ্টি পোল এন্ড পাওয়ার লিমিটেড নামের একটি কোম্পানিতে রান্নার কাজ করেন এই নারী শ্রমিক। পার্শ্ববর্তী সুটরিয়া গ্রামের সেকান্দর আলীর ছেলে কামাল মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী পিংকি বেগমের ছেলের সাথে পারভিন বেগমের নাতি খেলাধুলা করতে গিয়ে আঘাত পাই। এ নিয়ে দুই পরিবারের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়।

এরই জেরে গত ১ মার্চ বুধবার সকালে কাজের উদ্দেশ্যে ফ্যাক্টরিতে যাওয়ার পথে রওনা হয়। কামাল ও তার স্ত্রীসহ ৪/৫ জন লোক আগে থেকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে পারভিন যাওয়ার সাথে সাথে ধরে মারধর করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে বেঁধে রাখে ও মারধর করে। এ সময় তার সাথে থাকা সাড়ে তিন লাখ টাকা নিয়ে যায় কামাল ও তার স্ত্রী।

মাকে বেঁধে রেখেছে এমন সংবাদ পেয়ে কলেজ থেকে ছেলে এসে কামালের বাড়িতে গেলে ছেলে ও মাকে এক রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন চালায় বলে জানান ছেলে পারভেজ। এ ঘটনা এলাকায় বেশ চঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান কামাল প্রভাবশালী হওয়ায় সামান্য কিছু নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে দলবল নিয়ে এসে মানুষের উপর নির্যাতন চালায়। এলাকার অধিকাংশ লোকই তার নির্যাতনের শিকার,ভয়ে কেউ মুখ খুলেনা। ভুক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী কামাল ও পিংকি বেগমের বিচার দাবি করেন প্রশাসনের কাছে।

স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বার বলেন থানা থেকে আমাদের কাছে ফোন দিয়েছিল। ভুক্তভোগীরা ৯৯৯ আইনের সহযোগিতা চাই। আমাদের জানামতে পারভিন একজন পরিশ্রমী মেয়ে, এ পর্যন্ত তার কোন খারাপ সংবাদ পাইনি। একজন নারীর প্রতি এমন আচরণ করা উচিত হয়নি। এটি সে সম্পূর্ণ বেআইনি কাজ করেছে। আইনগতভাবে কামালকে বিচারের আওতায় হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত কামাল বলেন আমি এর কিছুই জানিনা এসব করেছে আমার দ্বিতীয় স্ত্রী পিংকি বেগম। আমার সাথে তাদের কোন টাকা পয়সা,পূর্ব শত্রুতা কিছুই নেই। আমার নামে ওরা মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

এই ঘটনায় বেলাব থানায় কামাল ও পিংকি বেগমের নাম উল্লেখ করে আরো ৪-৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে অভিযোগ করা হয়।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনী এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ /প্রতিদিনের পোস্ট

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

x

বেলাবতে নারী শ্রমিককে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ০২:৩৬:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মার্চ ২০২৩

তানভীর আহমেদ, প্রতিদিনের পোস্ট.কম: নরসিংদীর বেলাবতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পারভিন বেগম(৩০) নামের এক কারখানা নারী শ্রমিককে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাটুলী ইউনিয়নের হাবিশপুর গ্রামে।

জানাযায় উপজেলার হাবিশপুর গ্রামের শেখ হারুনের স্ত্রী সাত বছর যাবত দৃষ্টি পোল এন্ড পাওয়ার লিমিটেড নামের একটি কোম্পানিতে রান্নার কাজ করেন এই নারী শ্রমিক। পার্শ্ববর্তী সুটরিয়া গ্রামের সেকান্দর আলীর ছেলে কামাল মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী পিংকি বেগমের ছেলের সাথে পারভিন বেগমের নাতি খেলাধুলা করতে গিয়ে আঘাত পাই। এ নিয়ে দুই পরিবারের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়।

এরই জেরে গত ১ মার্চ বুধবার সকালে কাজের উদ্দেশ্যে ফ্যাক্টরিতে যাওয়ার পথে রওনা হয়। কামাল ও তার স্ত্রীসহ ৪/৫ জন লোক আগে থেকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে পারভিন যাওয়ার সাথে সাথে ধরে মারধর করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে বেঁধে রাখে ও মারধর করে। এ সময় তার সাথে থাকা সাড়ে তিন লাখ টাকা নিয়ে যায় কামাল ও তার স্ত্রী।

মাকে বেঁধে রেখেছে এমন সংবাদ পেয়ে কলেজ থেকে ছেলে এসে কামালের বাড়িতে গেলে ছেলে ও মাকে এক রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন চালায় বলে জানান ছেলে পারভেজ। এ ঘটনা এলাকায় বেশ চঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান কামাল প্রভাবশালী হওয়ায় সামান্য কিছু নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে দলবল নিয়ে এসে মানুষের উপর নির্যাতন চালায়। এলাকার অধিকাংশ লোকই তার নির্যাতনের শিকার,ভয়ে কেউ মুখ খুলেনা। ভুক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী কামাল ও পিংকি বেগমের বিচার দাবি করেন প্রশাসনের কাছে।

স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বার বলেন থানা থেকে আমাদের কাছে ফোন দিয়েছিল। ভুক্তভোগীরা ৯৯৯ আইনের সহযোগিতা চাই। আমাদের জানামতে পারভিন একজন পরিশ্রমী মেয়ে, এ পর্যন্ত তার কোন খারাপ সংবাদ পাইনি। একজন নারীর প্রতি এমন আচরণ করা উচিত হয়নি। এটি সে সম্পূর্ণ বেআইনি কাজ করেছে। আইনগতভাবে কামালকে বিচারের আওতায় হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত কামাল বলেন আমি এর কিছুই জানিনা এসব করেছে আমার দ্বিতীয় স্ত্রী পিংকি বেগম। আমার সাথে তাদের কোন টাকা পয়সা,পূর্ব শত্রুতা কিছুই নেই। আমার নামে ওরা মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

এই ঘটনায় বেলাব থানায় কামাল ও পিংকি বেগমের নাম উল্লেখ করে আরো ৪-৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে অভিযোগ করা হয়।

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনী এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ /প্রতিদিনের পোস্ট