ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :

মির্জাপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জমাকৃত অর্থ ফেরৎ দিতে নয়-ছয় এর অভিযোগ

  • প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ১১:৫২:১৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুলাই ২০২৩
  • ৬২ বার পড়া হয়েছে

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের ধোবার-হাট গ্রামে ভাই-ভাইয়ের পারিবারিক মীমাৎসাকৃত বিরোধীয় বিষয়ের জমাকৃত টাকা ফেরৎ দিতে সময়ক্ষেপন করার অভিযোগ উঠেছে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী এর বিরুদ্ধে। আজ ২২ জুলাই মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী মোঃ ইউনুছ মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন জানান- মোঃ ইউনুছ মিয়া ও তার ভাই লেপু মিয়া‘র সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ ছিল। শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়সহ গন্যমান্য লোকজনদের উপস্থিতিতে ভুক্তভোগী মোঃ ইউনুছ মিয়া-কে ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা পাওনা নির্ধারণ করে তাদের বিরুধীয় বিষয়টি মীমাৎসা করা হয়। তার ভাই লেপু মিয়া গন্যমান্য লোকজনদের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী‘র কাছে দাবীকৃত টাকার মধ্যে ৬০ হাজার টাকা জমা দেন। কিন্তু ঐ জমাকৃত টাকা বিগত প্রায় ৭মাস যাবৎ ভুক্তভোগী ইউনুছ মিয়া’কে ফেরৎ দিচ্ছেন না। টাকা ফেরৎ চাইলে তিনি টাকা ফেরৎ না দিয়ে নয় ছয় করে কালক্ষেপন করে চলেছেন। ভুক্তভোগী আরো জানান- ভাই-ভাইয়ের পারিবারিক বিরোধীয় বিষয় মীমাংসা হলেও চেয়ারম্যান এর ইশারায় তাকে সন্ত্রাসী ধরনের লোক মাধ্যমে প্রাণে হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যপারে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী বলেন- বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান বলতে পারবেন। টাকা আমার কাছে জমা আছে। কিন্তু ইউনুস এর কাছে একজন দোকানদারও টাকা পায়। ৬০ হাজার টাকা জমা, একলক্ষ টাকা জমা না হওয়া পর্যন্ত টাকা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে। এ প্রতিবেদক মুঠোফোনে শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Facebook Comments Box
ট্যাগস :

জীবনের শেষ ভোরেও সংবাদপত্র তুলে দিয়েছেন চৌধুরী

মির্জাপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জমাকৃত অর্থ ফেরৎ দিতে নয়-ছয় এর অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ১১:৫২:১৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুলাই ২০২৩

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের ধোবার-হাট গ্রামে ভাই-ভাইয়ের পারিবারিক মীমাৎসাকৃত বিরোধীয় বিষয়ের জমাকৃত টাকা ফেরৎ দিতে সময়ক্ষেপন করার অভিযোগ উঠেছে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী এর বিরুদ্ধে। আজ ২২ জুলাই মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী মোঃ ইউনুছ মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন জানান- মোঃ ইউনুছ মিয়া ও তার ভাই লেপু মিয়া‘র সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ ছিল। শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়সহ গন্যমান্য লোকজনদের উপস্থিতিতে ভুক্তভোগী মোঃ ইউনুছ মিয়া-কে ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা পাওনা নির্ধারণ করে তাদের বিরুধীয় বিষয়টি মীমাৎসা করা হয়। তার ভাই লেপু মিয়া গন্যমান্য লোকজনদের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী‘র কাছে দাবীকৃত টাকার মধ্যে ৬০ হাজার টাকা জমা দেন। কিন্তু ঐ জমাকৃত টাকা বিগত প্রায় ৭মাস যাবৎ ভুক্তভোগী ইউনুছ মিয়া’কে ফেরৎ দিচ্ছেন না। টাকা ফেরৎ চাইলে তিনি টাকা ফেরৎ না দিয়ে নয় ছয় করে কালক্ষেপন করে চলেছেন। ভুক্তভোগী আরো জানান- ভাই-ভাইয়ের পারিবারিক বিরোধীয় বিষয় মীমাংসা হলেও চেয়ারম্যান এর ইশারায় তাকে সন্ত্রাসী ধরনের লোক মাধ্যমে প্রাণে হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যপারে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিছলু চৌধুরী বলেন- বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান বলতে পারবেন। টাকা আমার কাছে জমা আছে। কিন্তু ইউনুস এর কাছে একজন দোকানদারও টাকা পায়। ৬০ হাজার টাকা জমা, একলক্ষ টাকা জমা না হওয়া পর্যন্ত টাকা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে। এ প্রতিবেদক মুঠোফোনে শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Facebook Comments Box