ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
বাংলাদেশ উদাচী শিল্পীগোষ্ঠী বেলাব থানা শাখার আয়োজনে বাংলা নববর্ষ পালিত ওয়েবসাইট তৈরিতে ৫০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে খন্দকার আইটি বেড়াতে এসে প্রবাসে ফেরা হলো না ফাহমিদার পর্যটন নগরী শ্রীমঙ্গলে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত বাসকপ নবীনগর শাখার উদ্যোগে আলোচনাসভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মনোহরদীতে মৃত ব্যক্তিদের মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রয়াত সাংবাদিকদের স্বরণে আলোচনা সভা, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হাল্টপ্রাইজ বোস্টন সামিটে যাবে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় বেলাবতে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রহিমা বেগম মুয়ুরী আলফাডাঙ্গায় রমজান মাস উপলক্ষে সুলভমূল্যে ডিম,দুধ ও মাংস বিক্রি: মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী

মৌলভীবাজারে ঠিকাদার খুনের ঘটনায় জরিত গ্রেপ্তার-২

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৯:২০:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৬২ বার পড়া হয়েছে

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

বকেয়া পাওনা অন্তোষে ঠিকাদার মো: সিরাজুল ইসলাম সিরাজ (২৮)কে খুনের ঘটনার সহিত জড়িত দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্যে এ তথ্য জানান মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, রাজনগর উপজেলার শ্যামেরকোনা, (নোয়াগাঁও) গ্রামের আব্দুল্লাহর ছেলে আব্দুল মুমিন (২৩) ও মানিক মিয়ার ছেলে জাহির মিয়া (২১) ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গতকাল শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে ১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নের ছিকরাইল গ্রামে জয়নাল মিয়ার ছেলে মাহিন আহমদ তাদের বসত বাড়িতে একটি মৃত দেহ পড়ে রয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃত দেহ উদ্ধার করে । তদন্তকালে জানা যায় যে, মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) পিতা-মোঃ চুনু মিয়া, সাং-মালিকোনা, ৮নং মুনসুরনগর ইউপি, থানা- রাজনগর, জেলা-মৌলভীবাজার রাজমিস্ত্রীর ঠিকাদার এর কাজ করতো। গত ১ বছর যাবত অত্র থানাধীন ১০নং নাজিরাবাদ ইউপির ছিকরাইল সাকিনের জনৈক মাহিন আহমদ, পিতা-জয়নাল মিয়া এর বসত বাড়িতে পাকা বিল্ডিং এর বসতঘর নির্মাণ কাজ শ্রমিকদের মাধ্যমে করিয়া আসিতেছে। গত দেড় মাস পূর্বে নির্মান কাজের জন্য শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়া সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে নিয়োগ করে। বেশ কয়েকদিন যাবত তাহার নিয়োগকৃত শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন বিবাদীর কাজের মজুরী নিয়া মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) এর সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তারই সূত্রধরে গত ১৪ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত সোয় ১২ টা হইতে বিকাল অনুমান ৩ টার মধ্যবর্তী যেকোন সময় শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন মিলে মৃত সিরাজুল ইসলাম এর মাথায়, ডান গালে, ডান চুখের ভ্রুর উপর, উভয় ঠোঁটের ডান পাশে, থুথুনীর ডান পাশে এবং নাকের অগ্রভাগে কাটা জখম করিয়া হত্যা করে। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়।

ওসি আরও জানান, পরবর্তীতে মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) এর ছোট ভাই নুরুল ইসলাম (১৯) উল্লেখিত ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। উক্ত এজাহারের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় খুনের মামলা রুজু করিয়া মামলার তদন্তভার এসআই(নিঃ) আবুল কালাম চৌধুরী এর উপর দেয়া হয়। পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম-বার, নিদের্শনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আজমল হোসেন প্রত্যক্ষ তত্ত্ববধানে ও ওসি মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী এবং পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইয়াছিন রাসেল এর নেতৃত্বে হত্যাকান্ডের রহস্য উদ্ঘাটন ও আসামী গ্রেপ্তারের জন্য এসআই/ আবুল কালাম চৌধুরী সহ একটি অভিযানিক টিম গঠন পূর্বক বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পরবর্তীতে আসামীদের দেওয়া তথ্য মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা, লোহার রড, ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ও টাকা উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদ্বয়কে ঘটনার বিষয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আজ শনিবার বিধি মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

x

মৌলভীবাজারে ঠিকাদার খুনের ঘটনায় জরিত গ্রেপ্তার-২

প্রকাশের সময় : ০৯:২০:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

বকেয়া পাওনা অন্তোষে ঠিকাদার মো: সিরাজুল ইসলাম সিরাজ (২৮)কে খুনের ঘটনার সহিত জড়িত দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্যে এ তথ্য জানান মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, রাজনগর উপজেলার শ্যামেরকোনা, (নোয়াগাঁও) গ্রামের আব্দুল্লাহর ছেলে আব্দুল মুমিন (২৩) ও মানিক মিয়ার ছেলে জাহির মিয়া (২১) ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গতকাল শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে ১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নের ছিকরাইল গ্রামে জয়নাল মিয়ার ছেলে মাহিন আহমদ তাদের বসত বাড়িতে একটি মৃত দেহ পড়ে রয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃত দেহ উদ্ধার করে । তদন্তকালে জানা যায় যে, মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) পিতা-মোঃ চুনু মিয়া, সাং-মালিকোনা, ৮নং মুনসুরনগর ইউপি, থানা- রাজনগর, জেলা-মৌলভীবাজার রাজমিস্ত্রীর ঠিকাদার এর কাজ করতো। গত ১ বছর যাবত অত্র থানাধীন ১০নং নাজিরাবাদ ইউপির ছিকরাইল সাকিনের জনৈক মাহিন আহমদ, পিতা-জয়নাল মিয়া এর বসত বাড়িতে পাকা বিল্ডিং এর বসতঘর নির্মাণ কাজ শ্রমিকদের মাধ্যমে করিয়া আসিতেছে। গত দেড় মাস পূর্বে নির্মান কাজের জন্য শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়া সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে নিয়োগ করে। বেশ কয়েকদিন যাবত তাহার নিয়োগকৃত শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন বিবাদীর কাজের মজুরী নিয়া মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) এর সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তারই সূত্রধরে গত ১৪ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত সোয় ১২ টা হইতে বিকাল অনুমান ৩ টার মধ্যবর্তী যেকোন সময় শ্রমিক আব্দুল মুমিন ও জাহির মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন মিলে মৃত সিরাজুল ইসলাম এর মাথায়, ডান গালে, ডান চুখের ভ্রুর উপর, উভয় ঠোঁটের ডান পাশে, থুথুনীর ডান পাশে এবং নাকের অগ্রভাগে কাটা জখম করিয়া হত্যা করে। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়।

ওসি আরও জানান, পরবর্তীতে মৃত সিরাজুল ইসলাম (২৮) এর ছোট ভাই নুরুল ইসলাম (১৯) উল্লেখিত ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। উক্ত এজাহারের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় খুনের মামলা রুজু করিয়া মামলার তদন্তভার এসআই(নিঃ) আবুল কালাম চৌধুরী এর উপর দেয়া হয়। পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম-বার, নিদের্শনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আজমল হোসেন প্রত্যক্ষ তত্ত্ববধানে ও ওসি মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী এবং পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইয়াছিন রাসেল এর নেতৃত্বে হত্যাকান্ডের রহস্য উদ্ঘাটন ও আসামী গ্রেপ্তারের জন্য এসআই/ আবুল কালাম চৌধুরী সহ একটি অভিযানিক টিম গঠন পূর্বক বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পরবর্তীতে আসামীদের দেওয়া তথ্য মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা, লোহার রড, ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ও টাকা উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদ্বয়কে ঘটনার বিষয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আজ শনিবার বিধি মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।