ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :

মৌলভীবাজারে শাযুস এর পঞ্চাশ বছরপূর্তি সুবর্ণ জয়ন্তী।

  • প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩৯:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ২১৫ বার পড়া হয়েছে

তিমির বনিক

স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশ স্বাধীনের চারদিন পরেই মৌলভীবাজার শাহবন্দরে গড়ে ওঠা সাংস্কৃতিক সংগঠন শাহবন্দর যুব সংস্থা (শাযুস)। আজ সোমবার সংগঠনটির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে। সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) শাহবন্দর শাযুস সংলগ্ন মাঠে দিনব্যাপী তিনপর্বের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শাহবন্দর যুব সংস্থার সভাপতি শাহমোহাম্মদ রাজুল আলীর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ইকতিয়ারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের প্রথমপর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ। বিশেষ অতিথির আসনে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. শামসুর রহমান, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. মোতাহার বিল্লাহ।

সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের প্রথমপর্বে শুরু হয় জাতীয় পতাকা, শাযুস পতাকা ও ২২ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়েরর এসপিএল পতাকা উত্তোলন, বেলুন উড়ানো, শাযুস প্রামাণ্যচিত্র আলোকপাত, শাযুসের গৌরবময় ৫০ বছর নামীয় স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন, শাযুস মনসুর মেধা বৃত্তি সনদ ও গরীব শিক্ষার্থীদের অনুদান। এছাড়া শ্রী নরেশ পন্ডিত ফাউন্ডেশন কর্তৃক শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও সেরা শিক্ষার্থী, শাযুস আর্দশ কৃষক, কৃতি প্রবীণ ফুটবলার, সামাজিক ব্যাক্তিত্ব,শাযুস এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয়পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহ্সান। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মো. ফজলুর রহমান, ৮ নং কনকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুবেল উদ্দিন। দ্বিতীয়পর্বে শাযুস প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যবৃন্দ, শাযুস সাবেক বর্তমান সভাপতি-সম্পাদক সম্মাননা প্রদান, শাযুস এলাকার ২০২১ সালের ৮ম শ্রেণি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান, শাযুস এলাকার ৬৫ বছর উর্ধ্বে প্রবীর্ণদের স্মৃতি চারণ ও উপহার সামগ্রী প্রদান।

তৃতীয়পর্বের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শরীফ উদ্দিন। ৩য় পর্বে শাযুস প্রামাণ্য চিত্র প্রর্দশন এবং আগত শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক খালেদ চৌধুরী, উপপ্রধান পৃষ্ঠপোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দিন আহমদ, এস আর মসুদ, হোসেন আহমদ, আলাউদ্দিন আলা, সাইদুজ্জামান জয়নাল, মো. ইমদাদুল হক চৌধুরী, রুহেল আহমদ, নজমুল হক, নজরুল ইসলাম মুহিব। শাযুস সাবেক সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন।

শাযুস সাবেক সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাইফুর রহমান বাবুল, আব্দুল মালিক বাবুল, হাফেজ আহমদ মাহফুজ, জুবায়ের আহমদ জুবের, ফেরদৌসুর রহমান টুটু, মফিদুল ইসলাম রানা, সাহেদ আহমদ। স্থানীয়দের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন স্থানীয়দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠন, সাংবাদিকদের সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও ইউপি সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্রছাত্রীবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। উল্লেখ্য;, শাহবন্দর যুব সংস্থা (শাযুস) ১৯৭১ সালে ২০ ডিসেম্বর, মুক্তিযুদ্ধে দেশ স্বাধীন হওয়ার চারদিন পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে ওঠে।

 

Facebook Comments Box
ট্যাগস :

জীবনের শেষ ভোরেও সংবাদপত্র তুলে দিয়েছেন চৌধুরী

মৌলভীবাজারে শাযুস এর পঞ্চাশ বছরপূর্তি সুবর্ণ জয়ন্তী।

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৯:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

তিমির বনিক

স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশ স্বাধীনের চারদিন পরেই মৌলভীবাজার শাহবন্দরে গড়ে ওঠা সাংস্কৃতিক সংগঠন শাহবন্দর যুব সংস্থা (শাযুস)। আজ সোমবার সংগঠনটির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে। সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) শাহবন্দর শাযুস সংলগ্ন মাঠে দিনব্যাপী তিনপর্বের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শাহবন্দর যুব সংস্থার সভাপতি শাহমোহাম্মদ রাজুল আলীর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ইকতিয়ারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের প্রথমপর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ। বিশেষ অতিথির আসনে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. শামসুর রহমান, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. মোতাহার বিল্লাহ।

সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের প্রথমপর্বে শুরু হয় জাতীয় পতাকা, শাযুস পতাকা ও ২২ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়েরর এসপিএল পতাকা উত্তোলন, বেলুন উড়ানো, শাযুস প্রামাণ্যচিত্র আলোকপাত, শাযুসের গৌরবময় ৫০ বছর নামীয় স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন, শাযুস মনসুর মেধা বৃত্তি সনদ ও গরীব শিক্ষার্থীদের অনুদান। এছাড়া শ্রী নরেশ পন্ডিত ফাউন্ডেশন কর্তৃক শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও সেরা শিক্ষার্থী, শাযুস আর্দশ কৃষক, কৃতি প্রবীণ ফুটবলার, সামাজিক ব্যাক্তিত্ব,শাযুস এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয়পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহ্সান। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মো. ফজলুর রহমান, ৮ নং কনকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুবেল উদ্দিন। দ্বিতীয়পর্বে শাযুস প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যবৃন্দ, শাযুস সাবেক বর্তমান সভাপতি-সম্পাদক সম্মাননা প্রদান, শাযুস এলাকার ২০২১ সালের ৮ম শ্রেণি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান, শাযুস এলাকার ৬৫ বছর উর্ধ্বে প্রবীর্ণদের স্মৃতি চারণ ও উপহার সামগ্রী প্রদান।

তৃতীয়পর্বের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শরীফ উদ্দিন। ৩য় পর্বে শাযুস প্রামাণ্য চিত্র প্রর্দশন এবং আগত শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন শাযুস পৃষ্ঠপোষক সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক খালেদ চৌধুরী, উপপ্রধান পৃষ্ঠপোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দিন আহমদ, এস আর মসুদ, হোসেন আহমদ, আলাউদ্দিন আলা, সাইদুজ্জামান জয়নাল, মো. ইমদাদুল হক চৌধুরী, রুহেল আহমদ, নজমুল হক, নজরুল ইসলাম মুহিব। শাযুস সাবেক সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন।

শাযুস সাবেক সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাইফুর রহমান বাবুল, আব্দুল মালিক বাবুল, হাফেজ আহমদ মাহফুজ, জুবায়ের আহমদ জুবের, ফেরদৌসুর রহমান টুটু, মফিদুল ইসলাম রানা, সাহেদ আহমদ। স্থানীয়দের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন স্থানীয়দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠন, সাংবাদিকদের সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও ইউপি সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্রছাত্রীবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। উল্লেখ্য;, শাহবন্দর যুব সংস্থা (শাযুস) ১৯৭১ সালে ২০ ডিসেম্বর, মুক্তিযুদ্ধে দেশ স্বাধীন হওয়ার চারদিন পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে ওঠে।

 

Facebook Comments Box