ঢাকা , শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিবপুরে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

নাজমুল হক চৌধুরী, নরসিংদী
  • প্রকাশের সময় : ০১:০১:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪
  • / ৬৮ বার পড়া হয়েছে

নরসিংদীর শিবপুরে দীর্ঘদিনের শারিরীক সম্পর্কের জেরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছেন এক তরুণী। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পৌরসভার বান্দারদিয়া এলাকার প্রেমিক তারিকুল ইসলামের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে সেই তরুণী।

এই ঘটনায় লোক লজ্জার ভয়ে আত্নগোপনে চলে গেছে প্রেমিক তারিকুল ইসলাম। সে বান্দারদিয়া গ্রামের বাছেদ মিয়ার ছেলে। ভুক্তভোগী ওই তরুণী উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের কালুয়ারকান্দা গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনার পর প্রেমিক তারিকুল ইসলাম বাড়ি থেকে পালিয়েছেন।

ওই তরুণী জানান, প্রায় পাঁচ মাস ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিক তারিকুল তাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে। সম্প্রতি বিষয়টি পরিবার জেনে যায়। এরপর থেকেই তারিকুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিলেন তিনি।

কিন্তু তাতে রাজি হননি প্রেমিক। এখন ফোনেও যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে তারিকুল। বাছেদ মিয়ার কাছে এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, আমার ছেলে বাড়িতে নেই। ফোনেও যোগাযোগ করা যাচ্ছেনা। ও আসলে আসল ঘটনা জানতে পারতাম। মেয়ের কথা আমার সম্পূর্ণ বিশ্বাস হচ্ছেনা।

এ বিষয়ে শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দিন প্রতিদিনের পোস্টকে জানান, অবস্থানের বিষয়টি নিয়ে কেউ থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

শিবপুরে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

প্রকাশের সময় : ০১:০১:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪

নরসিংদীর শিবপুরে দীর্ঘদিনের শারিরীক সম্পর্কের জেরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছেন এক তরুণী। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পৌরসভার বান্দারদিয়া এলাকার প্রেমিক তারিকুল ইসলামের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে সেই তরুণী।

এই ঘটনায় লোক লজ্জার ভয়ে আত্নগোপনে চলে গেছে প্রেমিক তারিকুল ইসলাম। সে বান্দারদিয়া গ্রামের বাছেদ মিয়ার ছেলে। ভুক্তভোগী ওই তরুণী উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের কালুয়ারকান্দা গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনার পর প্রেমিক তারিকুল ইসলাম বাড়ি থেকে পালিয়েছেন।

ওই তরুণী জানান, প্রায় পাঁচ মাস ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিক তারিকুল তাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে। সম্প্রতি বিষয়টি পরিবার জেনে যায়। এরপর থেকেই তারিকুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিলেন তিনি।

কিন্তু তাতে রাজি হননি প্রেমিক। এখন ফোনেও যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে তারিকুল। বাছেদ মিয়ার কাছে এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, আমার ছেলে বাড়িতে নেই। ফোনেও যোগাযোগ করা যাচ্ছেনা। ও আসলে আসল ঘটনা জানতে পারতাম। মেয়ের কথা আমার সম্পূর্ণ বিশ্বাস হচ্ছেনা।

এ বিষয়ে শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দিন প্রতিদিনের পোস্টকে জানান, অবস্থানের বিষয়টি নিয়ে কেউ থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।