ঢাকা , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১৩টি মোবাইলফোন ও লক্ষাধিক টাকার মালামালসহ যুবক গ্রেপ্তার

  • প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৫৭:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় পুলিশের অভিযানে চোরাইকৃত ১৩টি মোবাইল ফোন ও লক্ষাধিক টাকার মালামাল উদ্ধারসহ কামরুল হাসান (১৯) নামে এক চোরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
অদ্য বৃহস্পতিবার ভোররাতে উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ চোরাই মালামাল উদ্ধার সহ আসামি কামরুলকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারকৃত কামরুল ওই ইউনিয়নের আদমপুর নিবাসী তৈমুছ মিয়া ওরফে বাঘা মিয়ার ছেলে।
কুলাউড়া থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের মধ্য ব্রাহ্মণবাজারস্থ শিপার চৌধুরী ম্যানশন মার্কেটের শাহিন মিয়ার মালিকানাধীন ‘মা টেলিকম’ দোকানে বুধবার দিবাগত রাতে এক দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়। চোর দোকানের সাটারের ৪টি তালা ভেঙ্গে দোকানে ঢুকে বিভিন্ন মডেলের ১৩টি মোবাইল ফোন, ১টি কম্পিউটার মনিটর, নগদ ২ হাজার ২ শত টাকা সমেত সর্বমোট লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।
বিষয়টি থানা পুলিশকে দোকানের মালিক অবহিত করলে চুরির পরদিন কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেকের নেতৃত্বে এসআই মোহাম্মদ আমির উদ্দিনসহ পুলিশের একটি চৌকস দলসহ চোরকে গ্রেপ্তার ও মালামাল উদ্ধারের জন্য অভিযানে মাঠে নামে। অভিযানকালে পার্শ্ববর্তী দোকানের সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ঘটনায় জড়িত চোর কামরুল হাসানকে শনাক্ত করে ব্রাহ্মণবাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে তার দেওয়া তথ্যমতে চোরাইকৃত বিভিন্ন মডেলের ১৩টি মোবাইল ফোন, ১টি কম্পিউটার মনিটর, নগদ ২ হাজার ২ শত টাকা ও চুরির কাজে ব্যবহৃত লোহার শাবল, হাতুড়ি, কাঠে সংযুক্ত লোহা কাটার ব্লেড উদ্ধার করে জব্দ করা হয়।
এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেক বলেন, দোকানের মালিক শাহিন মিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে আসামির বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করে আসামিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
Facebook Comments Box
ট্যাগস :
জনপ্রিয়

১৩টি মোবাইলফোন ও লক্ষাধিক টাকার মালামালসহ যুবক গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৮:৫৭:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩
তিমির বনিক,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় পুলিশের অভিযানে চোরাইকৃত ১৩টি মোবাইল ফোন ও লক্ষাধিক টাকার মালামাল উদ্ধারসহ কামরুল হাসান (১৯) নামে এক চোরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
অদ্য বৃহস্পতিবার ভোররাতে উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ চোরাই মালামাল উদ্ধার সহ আসামি কামরুলকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারকৃত কামরুল ওই ইউনিয়নের আদমপুর নিবাসী তৈমুছ মিয়া ওরফে বাঘা মিয়ার ছেলে।
কুলাউড়া থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের মধ্য ব্রাহ্মণবাজারস্থ শিপার চৌধুরী ম্যানশন মার্কেটের শাহিন মিয়ার মালিকানাধীন ‘মা টেলিকম’ দোকানে বুধবার দিবাগত রাতে এক দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়। চোর দোকানের সাটারের ৪টি তালা ভেঙ্গে দোকানে ঢুকে বিভিন্ন মডেলের ১৩টি মোবাইল ফোন, ১টি কম্পিউটার মনিটর, নগদ ২ হাজার ২ শত টাকা সমেত সর্বমোট লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।
বিষয়টি থানা পুলিশকে দোকানের মালিক অবহিত করলে চুরির পরদিন কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেকের নেতৃত্বে এসআই মোহাম্মদ আমির উদ্দিনসহ পুলিশের একটি চৌকস দলসহ চোরকে গ্রেপ্তার ও মালামাল উদ্ধারের জন্য অভিযানে মাঠে নামে। অভিযানকালে পার্শ্ববর্তী দোকানের সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ঘটনায় জড়িত চোর কামরুল হাসানকে শনাক্ত করে ব্রাহ্মণবাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে তার দেওয়া তথ্যমতে চোরাইকৃত বিভিন্ন মডেলের ১৩টি মোবাইল ফোন, ১টি কম্পিউটার মনিটর, নগদ ২ হাজার ২ শত টাকা ও চুরির কাজে ব্যবহৃত লোহার শাবল, হাতুড়ি, কাঠে সংযুক্ত লোহা কাটার ব্লেড উদ্ধার করে জব্দ করা হয়।
এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেক বলেন, দোকানের মালিক শাহিন মিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে আসামির বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করে আসামিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
Facebook Comments Box