ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৬ চা শ্রমিকের সন্তানের পড়াশোনার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : ০৩:১২:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৮৫ বার পড়া হয়েছে

তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
৬ জন চা শ্রমিক সন্তানের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন। গতকাল বুধবার (৪ঠা অক্টোবর) শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালীঘাট ইউনিয়নের ভূড়ভূড়িয়া চা বাগানের এসব চা শ্রমিক সন্তানের লেখাপড়ার দায়িত্ব নেন তিনি। এর আগেও তিনি উপজেলার নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর সন্তান এবং চা শ্রমিক সন্তানদের ঝড়েপড়া থেকে তুলে এনে লেখাপড়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এ ছয় শিক্ষার্থীরা হলো, সৃষ্টি পাল সপ্তম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বৃষ্টি পাল ১০ম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পূর্ণিমা দোষাদ ৮ম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তৃষা রবিদাস ষষ্ঠ শ্রেণী (নতুন), কেয়া রবি দাস ষষ্ঠ শ্রেণী (নতুন ভর্তি) এবং সৌরভী মৃধা একাদশ শ্রেণী কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয়।স্থানীয়রা বলছেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন শ্রীমঙ্গলে যোগদানের পর থেকে সরকারি কাজের পাশাপাশি সামাজিক ও মানবিক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তারা আরও বলেন, তিনি শুধু মানবিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাই নন, মানবিক মানুষেরও উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই শিক্ষার্থীর পরিবারগুলো অসচ্ছল এবং হতদরিদ্র হওয়ায় তাদের লেখাপড়া প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খবর পেয়ে তাদের সবাইকে ডেকে এনে তাদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নেন।

ট্যাগস :

এই নিউজটি শেয়ার করুন

৬ চা শ্রমিকের সন্তানের পড়াশোনার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

প্রকাশের সময় : ০৩:১২:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩

তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
৬ জন চা শ্রমিক সন্তানের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন। গতকাল বুধবার (৪ঠা অক্টোবর) শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালীঘাট ইউনিয়নের ভূড়ভূড়িয়া চা বাগানের এসব চা শ্রমিক সন্তানের লেখাপড়ার দায়িত্ব নেন তিনি। এর আগেও তিনি উপজেলার নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর সন্তান এবং চা শ্রমিক সন্তানদের ঝড়েপড়া থেকে তুলে এনে লেখাপড়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এ ছয় শিক্ষার্থীরা হলো, সৃষ্টি পাল সপ্তম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বৃষ্টি পাল ১০ম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পূর্ণিমা দোষাদ ৮ম শ্রেণী উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তৃষা রবিদাস ষষ্ঠ শ্রেণী (নতুন), কেয়া রবি দাস ষষ্ঠ শ্রেণী (নতুন ভর্তি) এবং সৌরভী মৃধা একাদশ শ্রেণী কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয়।স্থানীয়রা বলছেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন শ্রীমঙ্গলে যোগদানের পর থেকে সরকারি কাজের পাশাপাশি সামাজিক ও মানবিক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তারা আরও বলেন, তিনি শুধু মানবিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাই নন, মানবিক মানুষেরও উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই শিক্ষার্থীর পরিবারগুলো অসচ্ছল এবং হতদরিদ্র হওয়ায় তাদের লেখাপড়া প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খবর পেয়ে তাদের সবাইকে ডেকে এনে তাদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নেন।